সোমবার, মার্চ ৪, ২০২৪ || ১২:৪১:০৯ পূর্বাহ্ণ

সাভার সরকারী হাসপাতালে এক্সরে বন্ধ দুই মাস, ভোগান্তিতে রোগীরা

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকার সাভারে সরকারী হাসপাতালের এক্সরে মেশিনটি প্রায় দ্ইু মাস ধরে বন্ধ রয়েছে। ফলে ভোগান্তিতে পরেছে অসহায় রোগীরা।

সরেজমিনে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায় এক্সরে রুমে তালা ঝুলছে। বাহিরে অপেক্ষা করছে এক্সরে করতে আসা রোগীরা। অথচ রোগীরা জানেই না দুই মাস ধরে বন্ধ এক্সরে রুমটি।

বুকে ব্যাথা নিয়ে সাভার নামা বাজার থেকে সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসছে নিমা আক্তার নামে এক নারী। চিকিৎসক দেখানের পর ব্যবস্থাপত্রে এক্সরে করার কথা লিখিতে দিয়েছে। বেলা ১১টা দিকে এক্সরের রুমের সামনে এসে দেখে তালাবদ্ধ। নিমা আক্তারের মতো অনেককেই দেখা গেছে এক্সরে করার জন্য অপেক্ষা করতে।

তারা বলেন, সকাল থেকে অপেক্ষা করছি এক্সরে করার জন্য কিন্তু এক্সরে কক্ষ তালাবদ্ধ। হাসপাতালের কেউ কিছু বলছেও না।

দক্ষিণদড়িয়াপুর এলাকার বাসিন্দা রুপোকুর রহমান গিয়েছিলেন সরকারী হাসপাতালে ইকো করার জন্য, গিয়ে জানতে পারেন দীর্ঘদিন ধরে ইকো ম্যাশিনটি বিকল।

তিনি বলেন, সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ইকো করানোর জন্য গেলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায় তাদের ইকো ম্যাশিনটি দীর্ঘদিন ধরে বিকল হয়ে রয়েছে। পরে বেসরকারী হাসপাতাল থেকে তিনি ইকো করিয়েছেন। তাতে তার বাড়তি টাকা গুনতে হয়েছে।

ভুক্তভোগী একাধিক রোগী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, টাকার অভাবে সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসি কিন্ত পরীক্ষানিরিক্ষা যদি বাহির থেকেই করতে হয় তাহলে সরকারী হাসপাতাল থাকার দরকার কি।

এবিষয়ে সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: সায়মুল হুদা বলেন, আমাদের হাসপাতালে কোন কিছুর কমতি নেই। তবে প্রায় দুই মাস ধরে এক্সরে বন্ধ রয়েছে। এক্সরে টেকনিশিয়ান এলপিআরে যাওয়ায় এই সমস্যা হয়েছে তাই রোগীদের কিছুটা ভোগান্তি হচ্ছে। নতুন টেকনিশিয়ান চেয়ে আবেদন করা হয়েছে কিন্তু এখনও কোন রেজাল্ট আসেনি।

খবরটি শেয়ার করুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *